December 13, 2018
x

শুধু আপনার নাম এবং ইমেইল নীচের লিখুন এবং আরও খবর পেতে ক্লিক করুন !!

বঙ্গ

লাইনচ্যুত নিউ ফরাক্কা এক্সপ্রেস, মৃত ৫ যাত্রী

লখনউ ও নয়াদিল্লি, ১০ অক্টোবর (পিটিআই): মালদহ থেকে নয়াদিল্লিগামী নিউ ফরাক্কা এক্সপ্রেসের পাঁচটি কোচ ও ইঞ্জিন লাইনচ্যুত হয়ে পাঁচ জনের মৃত্যু হল। গুরুতর জখম আরও ন’জন। অল্পবিস্তর চোট পেয়েছেন ৩০-৩৫ জন। বুধবার ভোরে রায়বেরিলির কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে। মৃতদের মধ্যে বাংলার কেউ নেই বলে রেল সূত্রে খবর।
উত্তরপ্রদেশ পুলিসের এডিজি (আইন-শৃঙ্খলা) আনন্দ কুমার বলেন, ভোর ৬টা ১০ মিনিটে রায়বেরিলির কাছে হরচন্দপুর এলাকায় নিউ ফরাক্কা এক্সপ্রেস (১৪০০৩) দুর্ঘটনাগ্রস্ত হয়। মৃতের সংখ্যা নিয়ে প্রাথমিকভাবে উত্তরপ্রদেশ পুলিস ও রেলের বক্তব্যের ভিন্নতায় ধন্দ তৈরি হয়েছিল। পুলিস জানিয়েছিল, দুর্ঘটনায় সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। রেলের দাবি ছিল, মারা গিয়েছেন পাঁচ জন। সন্ধ্যার দিকে অবশ্য ধন্দ কাটিয়ে সরকারিভাবে জানানো হয়, পাঁচ যাত্রী মারা গিয়েছেন। মৃতের সংখ্যার পাশাপাশি লাইনচ্যুত কোচের সংখ্যা নিয়েও তৈরি হয়েছিল ধন্দ। প্রাথমিকভাবে ন’টি কোচের কথা বলা হলেও পরে রেলের তরফে বলা হয়, পাঁচটি কোচ লাইনচ্যুত হয়েছে। রেলের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, মৃতদের মধ্যে ২ শিশু রয়েছে। একজনের বয়স এক বছর, অন্যজনের সাত বছর। উত্তরপ্রদেশ সরকারের মুখপাত্র শ্রীকান্ত শর্মা বলেন, গুরুতর জখমদের চিকিৎসা চলছে লখনউয়ের কিং জর্জ মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি ও সঞ্জয় গান্ধী পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেস-এ। বাকিদের চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় রায়বেরিলিতে।
রেলের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, আটকে পড়া যাত্রীদের প্রথমে বাসে করে লখনউ ও সেখান থেকে বিশেষ ট্রেনে নয়াদিল্লির উদ্দেশে রওনা করা হয়। ১ হাজার ৩৬৯ জন যাত্রী নিয়ে দুপুর ২টো ৪৫ মিনিটে লখনউ থেকে ছাড়ে বিশেষ ট্রেন। যাত্রীদের জন্য খাবারের প্যাকেটের ব্যবস্থা করা হয়। মৃতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মৃতদের পরিবার পিছু ৫ লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা করেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। গুরুতর জখমদের ১ লক্ষ টাকা ও সামান্য চোট পাওয়া যাত্রীদের ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। কমিশন অব রেলওয়ে সেফটি, নর্দার্ন জোনকে তদন্ত করে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন গোয়েল। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ মৃতদের পরিবার পিছু ২ লক্ষ টাকা ও গুরুতর জখমদের জন্য ৫০ হাজার টাকা করে সাহায্যের কথা ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থলে যান রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান অশ্বিনী লোহানি।
এডিজি আনন্দ কুমার বলেন, দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। উদ্ধারকারী দলের পাশাপাশি পাঠানো হয়েছে এটিএস অফিসারদের। রেল সূত্রের খবর, উদ্ধারের কাজে ড্রোন ও লং রেঞ্জ ক্যামেরার সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। রেলের তরফে বেশ কিছু হেল্পলাইন নম্বর ঘোষণা করা হয়। এগুলি হল বারাণসী ০৫৪২-২৫০৩৮১৪, লখনউ ৯৭৯৪৮৩০৯৭৫, প্রতাপগড় ০৫৩৪২-২২০৪৯২ ও রায়বেরিলি ০৫৩৫-২২১৩১৫৪। দুর্ঘটনার জেরে ২৪টি মেল ও এক্সপ্রেস সহ মোট ২৬টি ট্রেন বিভিন্ন জায়গায় আটকে পড়ে।

snws_ad

Follow Me:

1 Comment

  • really sad

নিচে মন্তব্য করুন