December 13, 2018
x

শুধু আপনার নাম এবং ইমেইল নীচের লিখুন এবং আরও খবর পেতে ক্লিক করুন !!

অন্যান্য

বিপাকে পর্যটক ও পুজো উদ্যোক্তারাও তিতলির প্রভাবে দীঘা সহ বিস্তীর্ণ এলাকার জনজীবন ব্যাহত

পুজোর ঠিক আগে ‘তিতলি’র প্রভাবে নিম্নচাপের বৃষ্টি ও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় দীঘার উপকূল এলাকা সহ কাঁথি ও এগরা মহকুমার জনজীবন কার্যত বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। এদিন সকাল থেকে নাগাড়ে তুমুল বৃষ্টির সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া বয়। পুজোর মুখে এই দুর্যোগ পরিস্থিতি তৈরি হওয়ায় দীঘার হোটেল ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে অন্যান্য ব্যবসায়ীরা রীতিমতো চিন্তিত। এদিকে যাঁরা পুজোর সময় ক’টা দিন বেড়াতে আসবেন বলে ঠিক করেছেন, তাঁদের মধ্যে সংশয়ের মেঘ তৈরি হয়েছে। দীঘার পাশাপাশি ম

ন্দারমণি, শঙ্করপুর, তাজপুর পর্যটন কেন্দ্রেও একই পরিস্থিতি।
বুধবার দীঘার সমুদ্রে ব্যাপক জলোচ্ছ্বাস ছিল। এদিন রীতিমতো গার্ডওয়াল টপকে জল রাস্তায় চলে আসে। পর্যটকদের কাউকে সমুদ্রে নামতেই দেওয়া হয়নি। পুলিস, নুলিয়া ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ছিল সদা তৎপর। পর্যটকদের আটকাতে সৈকতে দড়ি দিয়ে ঘিরে ‘লক্ষ্ণণরেখা’ তৈরি করে দেওয়া হয়। যদিও তিতলির জন্য আগে থেকেই দীঘায় সমুদ্রস্নানের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি ছিল। মঙ্গলবার বিকেলে এবং বুধবার সকালে পর্যটকদের সমুদ্রে না নামার জন্য দীঘা ও দীঘা কোস্টাল থানার তরফে মাইকিং করা হয়। যার ফলে এদিন সৈকত ছিল কার্যত পর্যটকশূন্য। সকালের দিকে কিছু পর্যটককে সমুদ্রের পাশে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেলেও দুপুরের আগে থেকেই তাঁরা হোটেলবন্দি হয়ে যান।
এদিন সকাল থেকে আকাশ মেঘলা হয়ে যায়। পরে বৃষ্টি নামে। আগে থেকে আবহাওয়া দপ্তর ও প্রশাসনের তরফে সমুদ্রস্নানের উপর নিষেধাজ্ঞা যেমন ছিল, তেমনি মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়। গুটিকয়েক পর্যটককেই সমুদ্রসৈকতে দেখা গিয়েছে। তাঁরা গার্ডওয়ালে বসেই স্নানের মজা নিয়েছেন।

snws_ad

Follow Me:

নিচে মন্তব্য করুন