ব্যাটারিগেট : জরিমানার মুখে অ্যাপল

0
4

পুরোনো আইফোনের গতি কমিয়ে দেওয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলা মীমাংসায় অ্যাপলকে জরিমানা গুণতে হচ্ছে ১১ কোটি ৩০ লাখ মার্কিন ডলার।

 ইউজারকে নতুন আইফোন কিনতে প্ররোচিত করতেই অ্যাপল এমনটা করেছে বলে দাবি জানিয়েছে ৩৩টি মার্কিন অঙ্গরাজ্য।২০১৬ সালে আইফোন ৬, আইফোন ৭ এবং আইফোন এসই’র গতি কমিয়ে দেওয়ার কারণে ভুক্তভোগী হয়েছেন বহু ইউজার। এই কেলেঙ্কারিই পরে,ব্যাটারিগেট নামে পরিচিতি পেয়েছে। মীমাংসার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি অ্যাপল। তবে, আগে অ্যাপল দাবি করেছে পুরোনো ব্যাটারি বাঁচিয়ে রাখার লক্ষ্যে আইফোনের গতি কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর আগে মার্চ মাসে এই বিষয়ে আলাদা একটি ক্লাস অ্যাকশন মামলা মীমাংসা করতে ভুক্তভোগী আইফোন মালিকদেরকে ৫০ কোটি মার্কিন ডলার পর্যন্ত জরিমানা দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে অ্যাপল। ২০১৬ সালে সফটওয়্যার আপডেটের মাধ্যমে আইফোন ৬, আইফোন ৭ এবং এসই’র প্রসেসরের গতি কমিয়ে দিয়েছে টেকনোলজি জায়ান্ট অ্যাপল।২০১৭ সালে অনিয়মিত ধীর গতির বিষয়টি গবেষকরা বের করার পর আইফোনের গতি কমানোর বিষয়টি স্বীকার করেছে অ্যাপল।সে সময় রাষ্ট্রপক্ষ দাবি করেছিলো, অ্যাপল প্রতারণামূলক আচরণ করেছে এবং ব্যাটারি বদলে দেওয়া দরকার ছিলো বা বিষয়টি প্রকাশ করা দরকার ছিলো।আর্থিক লাভের জন্য এমন পদক্ষেপের অভিযোগ নাকচ করেছে অ্যাপল।