সবার ঘরেই উঁকি দিতে পারে কেন্দ্র

0
22

Last Updated on by

হোয়াটসআপকে  ব্যবহার করে সরকার কি নজরদারি চালাচ্ছে, বিরোধীদের প্রশ্নের উত্তরে ,কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কিষণ রেড্ডি জানিয়েছেন ,তথ্য-প্রযুক্তি আইনের ৬৯ ধারা অনুযায়ী, যে কোনও নাগরিকের উপর নজরদারির অধিকার রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের।

মঙ্গলবার সংসদে হোয়াটসআপ-এ আড়িপাতা নিয়ে বিরোধী আক্রমণের মুখে পড়েছে ট্রেজারি বেঞ্চ। এম ডি এম কে সাংসদ এ গণেশমূর্তির প্রশ্নের জবাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কিষণ রেড্ডি একথা জানিয়েছেন। সম্প্রতি হোয়াটসআপ দাবি করেছিল যে, তাদের পরিষেবা ব্যবহার করে এমন চারটি মহাদেশের অন্তত ১ হাজার ৪০০ জন নজরদারির শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে সাংবাদিক, দলিত নেতা, মানবাধিকার কর্মী ও রাজনৈতিক নেতা রয়েছেন। অভিযোগের আঙুল ওঠে ইজরায়েলি সংস্থা , এন এস ও -র দিকে। জানা যায়,পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহার করা হয়েছিল।বিষয়টি সামনে আসার পর বিরোধী দলগুলি এ ব্যাপারে নরেন্দ্রমোদী সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলে বিরোধীরা। ফোনে আড়িপাতার অভিযোগে করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এবং  এন সি পি নেতা প্রফুল্ল প্যাটেল। এই বিষয়ে মামলায় কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্টও।