রাজ্যপালকে কড়া জবাবি চিঠি অধ্যক্ষের

0
19

Last Updated on by

রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের চিঠির পাল্টা কড়া জবাবি চিঠি পাঠিয়েছেন বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার অধ্যক্ষকে চিঠি লিখেছিলেন রাজ্যপাল।

সেই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতেই এবার পাল্টা জবাবি চিঠিতে অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন, চিঠিতে যা করতে বলা হয়েছে তা অভূতপূর্ব। দৃষ্টান্তমূলক। চিঠি বিধানসভার অধ্যক্ষ-র কাছে পৌঁছানোর  আগেই তা সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে। এটা কাম্য নয়। তাছাড়া রাজ্যপালের চিঠি পাওয়ার আগেই অধিবেশন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এর আগে ,মঙ্গলবার রাজভবনের তরফে অধ্যক্ষের কাছে চিঠি পাঠানো হয়। চিঠিতে বলা হয়, তপশিলি জাতি ও উপজাতি কমিশন সংক্রান্ত রাজভবন এবং বিধানসভার মধ্যে চিঠি চালাচালি হয়েছে। কী কারণে রাজ্যপাল বিল পেশের অনুমোদন দিচ্ছেন না, সেটা সমস্ত নথিসহ সদনে প্রকাশ করুন অধ্যক্ষ। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় সই না করে বিল আটকে রেখেছেন। আর তারফলেই বিধানসভার অধিবেশেন এসসি-এসটি বিল পেশ করা যায়নি। রাজ্যপালের বিরুদ্ধে অভিযোগে সরব হয় শাসকদল। এই ইস্যুতে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের আঁচ গিয়ে পৌঁছয় দিল্লিতেও। সোমবার রাজ্যসভাতেও প্রতিবাদ দেখায় তৃণমূল। ওয়াক আউট করে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে রাজ্যপালের অপসারণও দাবি করে।এরপরই সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে রাজ্য সরকারের উদ্দেশে পাল্টা সরব হয়েছেন রাজ্যপাল। জগদীপ ধনকড় বলেছেন,সরকার গরুর গাড়ির  স্পিডে চলছে,আর তিনি রকেটের স্পিডে কাজ করছেন। এই নোংরা রাজনীতি বরদাস্ত করবেন না। তাঁর কাঁধে বন্দুক রেখে এসসি-এসটি নিয়ে রাজনীতি করবেন না। রাজ্যপালের এই মন্তব্যের পরই পাল্টা সুর চড়িয়েছিলেন পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।প্রশ্ন তুলেছিলেন, চিঠি বিধানসভার অধ্যক্ষের হাতে পৌঁছনোর আগেই কী করে তা সংবাদমাধ্যমের হাতে চলে যায়।