Wednesday, May 22, 2024
বিনোদনকৃত্রিম চিনি খাওয়ার আগে

কৃত্রিম চিনি খাওয়ার আগে

কিছু খাবার এবং পানীয়তে মিষ্টি স্বাদ তৈরির জন্য কৃত্রিমভাবে প্রস্তুতকৃত রাসায়নিক পদার্থ হলো কৃত্রিম চিনি। একে চিনির বিকল্পও বলা হয়ে থাকে। এগুলোকে,তীব্র মিষ্টিকারী হিসেবে উল্লেখ করা হয়,কারণ এটা আসল চিনির মতো স্বাদ দেয়। তবে মিষ্টতা অনেক ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক চিনির চেয়ে বেশি হয়।

বিভিন্ন সময় গবেষকরা জানিয়েছেন, কৃত্রিম চিনি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও কৃত্রিম মিষ্টি ব্যবহারের বিরুদ্ধে নতুন নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে। কৃত্রিম চিনির ক্ষতিকর দিক হলো,কার্ডিওভাসকুলার রোগের ঝুঁকি বাড়ায়।এক গবেষণায় দেখা গেছে,উচ্চতর কৃত্রিম সুইটনার সেবন হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোকসহ কার্ডিওভাসকুলার বিভিন্ন রোগের ঝুঁকি বাড়ায়। কৃত্রিম সুইটনার সেরিব্রোভাসকুলার রোগেরও ঝুঁকি বাড়ায়।কৃত্রিম চিনিতে থাকা এরিথ্রিটল নামের একটি যৌগ রক্ত জমাট বাঁধা, স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত ঘটাতে পারে।ডায়াবেটিসের ঝুঁকিও বাড়ে।বলা হচ্ছে,টাইপ-টু ডায়াবেটিস মহামারির আকার ধারণ করা রোগ।গ্লুকোজ-অসহিষ্ণুতায় আক্রান্ত হয়ে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যাওয়া বা,প্রি-ডায়াবেটিক কন্ডিশন-এর ক্ষেত্রেও কৃত্রিম চিনি খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে। এ ছাড়া বিশ্বজুড়েই ডায়েট সোডা, বিভিন্ন ধরনের খাবার এবং দই-মিষ্টি-কেকসহ ডেজার্ট জাতীয় খাবারে এই কৃত্রিম চিনির ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে।আবার,ক্যালরি গ্রহণ কমানো এবং রক্তে শর্করার পরিমাণ না বাড়িয়ে মিষ্টি স্বাদ বজায় রাখার উদ্দেশ্য নিয়েই খাবার-দাবারে কৃত্রিম চিনির ব্যবহার চালু করা হয়েছে।কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে,আসলে যে মহামারি রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য এটা চালু করা হয়েছে, বাস্তবে সেই রোগের ঝুঁকিই বাড়িয়ে দিতে পারে এসব কৃত্রিম চিনি।অন্যদিকে এখন,যদিও অনেক লোক ওজন কমানোর জন্য কৃত্রিম মিষ্টির দিকে ঝুঁকছেন, এতে আসলে বিপরীত প্রতিক্রিয়া ফেলতে পারে।কারণ গবেষণায় দেখা গেছে, কৃত্রিমভাবে মিষ্টি করা খাবার ও পানীয় মানুষের খিদে এবং চিনি গ্রহণের ইচ্ছা বৃদ্ধি করতে পারে। খিদে বৃদ্ধি একটি স্বাস্থ্য ঝুঁকি।কারণ, এটি অতিরিক্ত খাওয়ার প্রতি মনোযোগী করে তুলতে পারে,যার ফলে অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধি হতে পারে,অন্য স্বাস্থ্য সমস্যাগুলোর মধ্যে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়তে পারে।এছাড়া,কৃত্রিম সুইটনার আপনার ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি বাড়াতে পারে কি না তা নিয়ে বিভিন্ন গবেষণা রয়েছে। এক গবেষণায় মূত্রাশয় ক্যান্সারের সঙ্গে স্যাকারিনের সম্পর্ক পাওয়া গেছে।গবেষণায় দেখা গেছে, কিছু কৃত্রিম মিষ্টি লোকের মধ্যে বিষণ্নতা সৃষ্টি করতে পারে। বিশেষ করে যাদের পূর্ববিদ্যমান শর্ট টেমপার রয়েছে।পাশাপাশি কৃত্রিম চিনি কিছু মানুষের মাথা ব্যথার কারণ হতে পারে, যাঁরা মাইগ্রেনে ভুগছেন তাঁরা বেশি সংবেদনশীল।

More News

গ্রাফিক নভেল নিয়ে মৈনাকের ছবি

0
পরিচালক মৈনাক ভৌমিক গল্প নির্বাচনের ক্ষেত্রে হোক ,বা,সিনেমার বিষয়বস্তু কখনও বন্ধুত্ব, কখনও বা আবার মা-মেয়ের...

বিশ্ববাজারে চিনির দাম বাড়তে পারে

0
পেঁয়াজ রপ্তানিতে ৪০ শতাংশ শুল্ক বসানোর পর ভারত এবার চিনি রপ্তানি বন্ধ করতে চলেছে। সাত...