দেশে অ্যাক্টিভ কেসের দ্বিগুণ রোগী সুস্থ হয়েছেন

0
0

দেশে করোনা রোগীদের সুস্থতার সংখ্যা অ্যাক্টিভ কেসের দ্বিগুণ। মঙ্গলবার একথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। সাংবাদিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব রাজেশ ভূষণ জানিয়েছেন, প্রথম লকডাউন থেকে দেখতে গেলে কেস ফাটালিটি রেট বা মৃত্যুর হারও সবচেয়ে কম।

তিনি জানিয়েছেন,  মোট ২ কোটি কোভিড-১৯ টেস্ট হয়েছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় টেস্ট হয়েছে ৬.৬ লক্ষ । চিকিৎসাধীন রোগীর থেকে দ্বিগুণ বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন। লকডাউনের পর থেকে এই প্রথমবার মৃত্যুর হার কমেছে, যা খুব ভালো লক্ষ্মণ। বর্তমানে তা ২.১০%। তিনি জানিয়েছেন, আরটিপিসিআর ও অ্যান্টিজেন টেস্ট কিটের মাধ্যমে অনেক রাজ্যেই টেস্ট বাড়ানো হয়েছে। টেস্টের জাতীয় গড় প্রতিদিন প্রতি মিলিয়নে ১৪০। দেশে ২৮ রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল তার চেয়েও বেশি টেস্ট করেছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য সচিব। সবচেয়ে বেশি টেস্ট বাড়িয়েছে গোয়া, দিল্লি, তামিলনাড়ু ও ত্রিপুরা। রাজেশ ভূষণ জানিয়েছেন, প্রতিদিন ও সাপ্তাহিক পজিটিভ কেসের দিকে নজর রয়েছে। ২৮টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পজিটিভিটি রেট ১০%এরও কম। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, দেশে ১২লক্ষের বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন, মঙ্গলবার কোভিড-১৯এ অ্যাকচুয়াল কেস লোড  ৫লক্ষ ৮৬হাজার ২৯৮।  দেশে ২৪ ঘণ্টায় ৫২হাজার ৫০জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। মঙ্গলবার মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে ১৮লক্ষ ৫৫হাজার ৭৪৬। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২লক্ষ ৩০হাজার ৫১০জন করোনা রোগী। মৃতের সংখ্যা ৩৮হাজার ৯৩৮।