স্থগিত গো-বিজ্ঞান পরীক্ষা, নোটিস

0
3

দেশজুড়ে সমালোচনার ধাক্কায় অনির্দিষ্ট কালের জন্য গো-বিজ্ঞান পরীক্ষা বন্ধ করে দিয়েছে রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়োগ। বৃহস্পতিবার ওই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল।

তার আগেই কামধেনু আয়োগের তরফে একটি নোটিস জারি করে পরীক্ষা স্থগিত রাখার বিষয়টি জানানো হয়েছে।ইউজিসি দেশের ৯০০ বিশ্ববিদ্যালয়কে এই পরীক্ষা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। ৫ লক্ষ লোক অনলাইনে পরীক্ষা দিতে আবেদন করেছিলেন।কিন্তু কেন আপাতত বন্ধ রাখা হচ্ছে এই পরীক্ষা, সেবিষয়ে নোটিসে কিছু জানানো হয়নি।পরীক্ষা ফের কবে হতে পারে, সেবিষয়েও কিছু বলা হয়নি। ২০ ফেব্রুয়ারি আয়োগের সভাপতি বল্লভভাই কাঠিরিয়া তাঁর দু’বছরের মেয়াদ সম্পূর্ণ করেছেন।তিনি সরে যাওয়ার পরই পরীক্ষা বাতিলের এই সিদ্ধান্ত।এর আগে ৫ জানুয়ারি বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন কাঠিরিয়া। তিনি জানিয়েছিলেন, গরুর সবটাই বিজ্ঞান। যখন ৫ ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনীতির কথা বলা হয়,তখন তার মধ্যে দেশের ১৯ কোটি ৪২ লক্ষ গরুর প্রসঙ্গও আসে।কেননা দেশের অর্থনীতিতে গরুও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ৫৪ পাতার পাঠ্যক্রমও প্রকাশ করা হয়। তাতে বিদেশি গরুদের থেকে ভারতীয় গরু কত উন্নত সেই প্রশস্তি রয়েছে। স্বদেশীয় গরুর আবেগ থেকে গোবরের উপকারিতা-সহ নানা বিষয়ই রয়েছে সেখানে। যার মধ্যে রয়েছে গোহত্যার সঙ্গে ভূমিকম্পের সম্পর্ক নিয়ে অদ্ভুত কিছু দাবি।ওই পাঠ্যক্রম প্রকাশ পাওয়ার পর থেকেই শুরু হয় তীব্র সমালোচনা। পরে নিজেদের ওয়েবসাইট থেকে তা সরিয়ে নেয় রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়োগ। অবশেষে স্থগিত রাখা হয়েছে পরীক্ষা।