গলা শুকালে ডাক্তার দেখান

0
3

মাঝেরাতে জল তেষ্টা পেয়ে ঘুম ভাঙ্গায় এক গ্লাস জল খাওয়ার পরও যেন তেষ্টা মিটছে না। গলা শুকিয়ে কাঠ, এই রকম ঘটনা যদি ঘন ঘন হয়,তা হলে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। অনেক জটিল অসুখের কথা জানান দেয় এই লক্ষণ।

যদি এই ঘটনা প্রত্যেক দিনই ঘটে, তা হলে অবিলম্বে ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।  শরীর অত্যধিক ক্লান্ত হয়ে পড়লে এমন হতে পারে। হয়তো জীবনযাপনে খানিক বদল আনা প্রয়োজন। কোনও কারণে যদি বাড়তি ধকল গিয়ে থাকে, তা হলে একটু বিরতি নিতে পারেন। মনের ক্লান্তি বা অবসাদের লক্ষণও কিন্তু গলা শুকিয়ে যাওয়া। তাই মানসিক ক্লান্তির কথা ভুলে যাবেন না।যাঁদের ডায়াবিটিস রয়েছে,অন্যদের তুলনায় অনেক ঘন ঘন প্রস্রাব হয় তাঁদের। সে কারণে শরীরে জলের পরিমাণ কমে গিয়ে গলা শুকিয়ে যেতে পারে।পেটের গোলমাল হলে বা খুব বেশি ঘাম হলে শরীর থেকে অনেক পরিমাণে জল বেরিয়ে যায়। তার ফলে ডিহাইড্রেশন হতে পারে। গলা শুকিয়ে যাওয়া ডিহাইড্রেশনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণ। এবং ডিহাইড্রেশন থেকে নানা শারীরিক জটিলতা তৈরি হয়। যাঁদের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা রয়েছে,তাঁদের অত্যধিক ঘাম হয় বেশির ভাগ সময়ে। তার ফলে শরীর থেকে জল বেরিয়ে গলা শুকিয়ে আসে। তাই প্রত্যেক দিন পর্যাপ্ত পরিমাণ জল খাওয়া উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।ঠান্ডা লেগে ফুসফুসের সমস্যা হলে গলা শুকিয়ে যেতে পারে। যাঁদের কিডনি বা লিভারের সমস্যা রয়েছে, তাঁদেরও গলা শুকিয়ে আসার প্রবণতা থাকে।