বোমা-গুলিতে উত্তপ্ত নৈহাটি, থানা ঘেরাও বিজেপির

0
33

ভোট পরবর্তী অশান্তিতে তৃণমূলের সঙ্গে সংঘর্ষে গুলি-বোমাবাজির ঘটনায় সাংসদ অর্জুন সিংয়ে নেতত্বে নৈহাটি থানা ঘেরাও করেছেন বিজেপি-র ক্ষুব্ধ কর্মী, সমর্থকেরা। ঘটনায় দুপক্ষের অন্তত দশজন আহত হয়েছেন।

এমন ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে বিজেপির চোদ্দো কর্মী, সমর্থককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিকে, সংঘর্ষে দলীয় কর্মীদের জড়িত থাকার অভিযোগ মানতে চায়নি বিজেপি। তাদের দাবি, বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে ঢুকে হামলা চালিয়েছে তৃণমূল কর্মীরা। অভিযোগ, নৈহাটির বিজয়নগর এলাকার একটি ক্লাব থেকে শুক্রবার রাত দশটা নাগাদ দুপক্ষের মধ্যে রাজনৈতিক সংঘর্ষ শুরু হয়। বিজেপি ও তৃণমূল, দুপক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ-হাতাহাতি বেঁধে যায়। অভিযোগ, হাতাহাতি পর্বের মধ্যেই গুলি চলার পাশাপাশি ব্যাপক বোমাবাজিও শুরু করা হয়। ভাঙচুর করা হয় একাধিক বিজেপি সমর্থকদের বাড়িও। এদিকে, এমন সংঘর্ষের ঘটনার জেরে এলাকার পরিস্থিতি রীতিমতো থমথমে হয়ে ওঠে। যা বজায় ছিল শনিবার সকালেও। হামলা, অশান্তির জন্য তৃণমূলের ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের নেতৃত্বে নৈহাটি থানা ঘেরাও করে ক্ষোভে ফেটে পড়েন দলের উত্তেজিত নেতাকর্মীরা। এদিকে, কাঁচরাপাড়ায় তৃণমূলের প্রাক্তন কাউন্সিলরের বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছে। বোমার আঘাতের অভিঘাতে ভেঙে গিয়েছে প্রাক্তন কাউন্সিলরের বাড়ির কাঁচ। এমন ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে এলাকায়।