Warning: Constant WP_MEMORY_LIMIT already defined in /home/customer/www/snewz.in/public_html/wp-config.php on line 105
শীতের আগে চুলের পরিচর্যা - S Newz
Friday, December 9, 2022
লাইফস্টাইলশীতের আগে চুলের পরিচর্যা

শীতের আগে চুলের পরিচর্যা

শীত আসতে এখনো কিছুদিন বাকি। তার পরও হিমেল হাওয়ার রুক্ষভাব প্রকৃতিতে পড়তে শুরু করেছে।

শরীরের খসখসে ভাব জানান দিচ্ছে, শীতে নিতে হবে বাড়তি যত্ন। চুলের উজ্জ্বলতাও কমতে শুরু করে। তাই শীতে চুলের যত্নে একটু বাড়তি মনোযোগ দিতে হবে।না হলে চুলে খুশকি, রুক্ষ হওয়া, ঝট পাকানো, চুল পড়াসহ নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। এখন থেকেই যদি যত্ন শুরু করা যায়, তাহলে ভারী শীতেও চুল থাকবে ঝলমলে সুন্দর।যেমন,দু-তিন মাস পর পর চুল স্ট্রিমিং করে নিলে চুল পড়া বন্ধ ও বৃদ্ধিতে উপকার হয়। শীতের আগে অনেকে চুল কাটিয়ে নেন।অথবা শেপ করে নিতে পছন্দ করেন। শীতে বড় চুল মেনটেন করা বেশ কঠিন। ছোট চুলে যত্ন নিতে সুবিধা, তাই চাইলে শীত আসার আগেই চুল কেটে ছোট করে নিতে পারেন।শীত পড়তে না পড়তে অনেকেই গরম জল দিয়ে স্নান করা শুরু করেন। শরীরের ত্বকের জন্য হালকা গরম জল উপকারী হলেও চুলের জন্য তা বেশ ক্ষতিকর। তাই সব সময় স্বাভাবিক তাপমাত্রার জলেতে চুল ধোয়ার চেষ্টা করতে হবে। কারণ চুলে গরম জল ব্যবহার চুলকে আরো রুক্ষ করে তোলে। চুলের গোড়ায় গরম জল পড়লে চুলের কিউটিকল ফুলে ওঠে।এরপর আর্দ্রতার সংস্পর্শে এলে চুল রুক্ষ হয়ে যায়।চুল মোছায় সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।স্নানের পর অনেকেই তোয়ালে দিয়ে ঘষে ঘষে চুল মোছেন, ঠাণ্ডা লাগার ভয়ে তাড়াতাড়ি চুল শুকাতে চান।তাই বলে তোয়ালে দিয়ে জোরে জোরে চুল ঘষা যাবে না। এতে চুল শুকানোর বদলে চুলের আরো ক্ষতি হয় বেশি। স্নানের পর তোয়ালে দিয়ে আলতো করে চুল মুছতে হবে। এরপর বাতাসে চুল খোলা রেখে শুকিয়ে নেওয়া ভালো।চুল অতিরিক্ত আঁচড়াবেন না।অনেকে দিনে বেশ কয়েকবার চুল আঁচড়ান।চুল সুন্দর দেখানোর জন্য বারবার আঁচড়ানোর দরকার নেই। মাঝে মাঝে আঁচড়াবেন।কারণ চিরুনির ঘষা লেগে চুলের গোড়া অনেক সময় আলগা হয়ে যেতে পারে। এর ফলে চুল রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। তাই প্রয়োজন ছাড়া চুল আঁচড়ানো উচিত নয়।আবার,শীতে যেহেতু চুল বেশি পড়ে এবং চুলে খুশকির প্রাদুর্ভাব বেশি দেখা যায়। তাই শীতের আগেই শীত মৌসুমের উপযোগী কিছু হেয়ারপ্যাক চুলে লাগিয়ে নিন।এতে চুলের আর্দ্রতা বজায় থাকবে। চুল ভালো রাখার পাশাপাশি স্ক্যাল্প পরিষ্কার রাখতে এবং খুশকি থেকে দূরে থাকতেও সাহায্য করবে এসব হেয়ারপ্যাক।পাশাপাশি রোদে বাইরে গেলে যেমন আমরা সানস্ক্রিন ব্যবহার করি ত্বকের সুরক্ষার জন্য।তেমনি চুলের নানাবিধ সুরক্ষার জন্য চুলের সিরাম ব্যবহার করা উচিত।এতে চুল নরমও থাকে আবার বাইরের ধুলোবালি থেকে চুল সুরক্ষিত থাকে। শীতে যেহেতু চুল শুষ্ক হয়ে যায়, তাই চুল সিল্কি ও নরম করার জন্য শীতের আগে থেকেই নিয়মিত সিরাম ব্যবহার করা উচিত।সেইসঙ্গে,চুলের যত্নে তেলের ব্যবহার বেশ গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু এই সময় চুল স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারায়, তাই ময়েশ্চারাইজারের বিশেষ প্রয়োজন হয়। সপ্তাহে অন্তত তিন দিন তেল গরম করে মাথায় ম্যাসাজ করতে পারেন। অথবা তেল মেখে সারা রাত রেখে সকালে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিতে পারেন।আর,কথায় আছে আপনি যা খাবেন আপনার শরীর ঠিক তেমনই হবে।চুল ও  ত্বক যা-ই বলেন না কেন, এগুলো সুস্থ-সুন্দর রাখতে হলে স্বাস্থ্যকর খাবারের বিকল্প নেই। শীতের শুরুতেই প্রচুর শাক-সবজি বাজারে ওঠে, যা ত্বক ও শরীরের জন্য অনেক উপকার বয়ে আনে। সবুজ ও রঙিন শাক-সবজি শরীরের জন্য অনেক ভালো।তাই শীতে এগুলো খাদ্য তালিকায় রাখার চেষ্টা করতে হবে।

More News

শীতে শুষ্ক ত্বকের যত্নে পানীয়

0
নভেম্বরে শীতের শুরু। শীত এলেই ত্বকে টান ধরতে শুরু করে। ত্বক খসখসে হতে শুরু করে।  রুক্ষ, খসখসে ত্বক শীতের জানান দেয়। অনেকেই ত্বকের যত্ন নিতে শুরু করেছেন। তবে বাজারে থেকে কেনা প্রসাধনী তো রয়েছে, সেই সঙ্গে...

চুলের যত্নে খাবার খান 

0
চুলের যত্নে কিছু খাবার খেতে পারেন। তবে কিছু খাবার নিয়মিত খেলে চুল পড়াও কমে যেতে...

চুল পড়ার সমস্যায় পান পাতা

0
চুল পড়ার সমস্যা নতুন কিছু নয়। জীবনযাত্রার ধরন, অতিরিক্ত দূষণ, বাজারের চলতি শ্যাম্পুর অতিরিক্ত ব্যবহার,...