মহাকাশে নভশ্চরদের সঙ্গে ছোট্ট চকচকে ডাইনোসর!

0
16

Last Updated on by

ইস্টার্ন সময় অনুযায়ী, রবিবার বিকেল ৩টে ২২ মিনিটে আমেরিকার বেসরকারি রকেট ফ্যালকন-৯ মহাকাশে পৌঁছে গিয়েছে। তার সঙ্গেই রেকর্ড গড়েছে এলন মাস্কের কোম্পানি স্পেস এক্স।

রকেটের ভিতরের বেশ কয়েকটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার মধ্যে রকেটে থাকা নভশ্চর রবার্ট বেঙ্কেন ও ডাউগ হার্লের পাশের সিটে বসে থাকতে দেখা গিয়েছে একটি চকচকে নীল রঙের ডাইনোসর খেলনাকে। তা নিয়ে কৌতুহল প্রকাশ করেছেন নেটিজেনরা। তারপরই এলন মাস্কের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে জানানো হয়েছে, ওই খেলনাটি আসলে জিরো-জি ইনডিকেটর। মহাকাশচারীরা পৃথিবীর বাইরে যাওয়ার সময়, এধরণের খেলনা ব্যবহার করেন। বহু বছর ধরে তা প্রচলিত। রকেট পৃথিবীর বাইরে গেলে অর্থাৎ মাধ্যাকর্ষণ শক্তি শূণ্য হয়ে গেলে, খেলনাটি ভাসতে শুরু করে। তখনই বোঝা যায় যে রকেট মহাকাশে পৌঁছে গিয়েছে। তবে সেক্ষেত্রে ডাইনোসর বাদ দিয়ে অন্য খেলনাও ব্যবহার করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে ডাইনোসর ব্যবহারের বিশেষ কারণ রয়েছে। মহাকাশচারী বেঙ্কেন ও হার্লে দুজনের একটি করে পুত্র সন্তান রয়েছে। তারা দুজনেই ডাইনোসরপ্রেমী। ফ্যালকন নাইনের উৎক্ষেপণের আগে, দুই মহাকাশচারীর সন্তান তাদের সমস্ত ডাইনোসর খেলনাগুলি দিয়েছিল। সেখান থেকে ওই চকচকে নীল খেলনাটিকে বেছে নেওয়া হয়েছে। বেঙ্কেন জানিয়েছেন, তাঁদের ছেলেরা নিজেদের খেলনাকে মহাকাশে যেতে দেখে খুব খুশি হবে। সন্তানকে এই অভিনব সুযোগ দিতে পেরে খুশি দুই মহাকাশচারী।