নাকতলায় পার্থ চ্যাটার্জির বাড়ির সামনে বিক্ষোভ চাকরি প্রার্থীদের

0
9

আচমকা শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাকতলার বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখালেন এসএসসি চাকরি প্রার্থীরা। ব‍্যারিকেড পেরিয়ে পার্থ চ্যাটার্জির সঙ্গে দেখা করতে চাইলেন বিক্ষোভকারীরা। কিন্তু পার্থ তাদের সঙ্গে দেখা করেননি।

তাদের দাবি ২০১৯ সালে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী, কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি এখনো পালন করেননি। তাই রবিবার রাত দশটা নাগাদ নাকতলায় পার্থ চ্যাটার্জির বাড়ির সামনে হাজির হয় প্রায় শ’খানেক এসএসসি চাকরি প্রার্থীরা। প্রথমে পুলিশ বাধা দিলে, পুলিশের সঙ্গে শুরু হয় ব্যাপক ধস্তাধস্তি। পুলিশ তাদেরকে মারধর করেছে বলেও অভিযোগ করে বিক্ষোভকারীরা। অবশ্য তা অস্বীকার করেছে পুলিশের উচ্চ পদস্থ অফিসাররা। চাকরি প্রার্থীদের বক্তব্য ২০১৬ সালে স্কুল সার্ভিস কমিশনের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, কর্মশিক্ষা ও শারীরিকশিক্ষা বিষয়ক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে তারা প্যানেলভুক্ত হয়েছিলেন। নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত বর্ধিত আসনের দাবিতে ২০১৯ সালের ২৮শে ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮শে মার্চ পর্যন্ত দীর্ঘ ২৯ দিন ধর্মতলায় যুব ছাত্র অধিকার মঞ্চের অনশনে সামিল হয়েছিলেন তারা। অনশন মঞ্চে উপস্থিত হয়ে আইন বদল করে মেধা অনুযায়ী চাকরির ব্যবস্থা করার আশ্বাস দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত ৯০ শতাংশ কার্যকর হলেও কর্মশিক্ষা ও শারীরিকশিক্ষা বিভাগের চাকরি প্রার্থীরা এখনো বঞ্চিত রয়েছে বলে জানান। বিক্ষোভকারীরা বলেন, রাজ্য সরকার খেলা হবে দিবস পালন করছে। অথচ আমরা খেলার শিক্ষক আমরা চাকরি পাচ্ছি না। পার্থ চট্টোপাধ্যায় শিক্ষামন্ত্রী থাকাকালীন কথা দিয়েছিলেন, কিন্তু সেই কথা তিনি রাখলেন না। তাই নিজেদের দাবী নিয়ে নতুন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করেছিলেন তারা। কিন্তু মন্ত্রীর দেখা পাইনি বলে জানিয়েছেন চাকরি প্রার্থীরা। সেই জন্য প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ির সামনেই রাতে বিক্ষোভ দেখানোর সিদ্ধান্ত নেন তারা। ঘটনাস্থলে বাশদ্রোনী থানার বিশাল পুলিশবাহিনী আসে এবং কিছুসংখ্যক বিক্ষোভকারীদের আটক করে নিয়ে যায়।