জাভেদের মামলায় ফের বিপাকে কঙ্গনা

0
14

বলিউডের কুইন কঙ্গনা রানাওয়াত ফের বিপাকে পড়লেন।গীতিকার জাভেদ আখতারের দায়ের করা মানহানি মামলায় মুম্বই ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের তরফ থেকে কঙ্গনার নামে জারি হয়েছে জামিনযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা ৷ জাভেদ আখতারের বিরুদ্ধে মানহানিকর মন্তব্য করায় ২০২০ সালের নভেম্বর মাসে কঙ্গনার বিরুদ্ধে মুম্বইয়ের ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে মানহানির মামলা দায়ের হয়েছিল।

অন্যদিকে ৩রা ডিসেম্বর এই মামলায় ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে জবানবন্দি দেন জাভেদ আখতার। এরপর আদালতের পক্ষ থেকে জুহু পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখে রিপোর্ট জমা দিতে। পুলিশের জমা দেওয়া রিপোর্টে ভিত্তিতেই কঙ্গনার বিরুদ্ধে সমন জারি করেছিল আদালত। সেই মামলাতেই এবার জামিনযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে কঙ্গনার নামে ৷সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর প্রায় প্রত্যেকদিনই নতুন নতুন বিতর্কে জড়িয়েছেন কঙ্গনা রানাওয়াত৷ কখনও টুইটে, কখনও সংবাদমাধ্যমে বিতর্কিত বিষয়ে কথা বলতেও দেখা গিয়েছিল কঙ্গনাকে৷ কঙ্গনার এই কাণ্ড দেখে, বলিউডের বেশিরভাগ মানুষই কঙ্গনার বিরুদ্ধে নানা কু-কথা বলতে শুরু করেছিল৷ তবে এতেও থামেননি কঙ্গনা রানাওয়াত৷এই সময়ই সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনায় গীতিকার জাভেদ আখতারের নাম নিয়ে আসেন কঙ্গনা৷ সেই বিষয়েই কঙ্গনার বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করেছিলেন জাভেদ আখতার ৷তবে এ ঘটনা প্রথম নয় ৷ এর আগে, হৃত্বিকের সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়েনের সময়, নিয়ে এসেছিলেন জাভেদ আখতারের নাম৷ তখনও এই নিয়ে উঠেছিল তুমুল বিতর্ক ৷ এর মধ্যেই,কঙ্গনা ইস্যুতে বয়ান রেকর্ড করেছেন হৃত্বিক রোশন।অভিনেতাকে নোটিশ পাঠিয়ে তলব করেছিল মুম্বই ক্রাইম ব্রাঞ্চের ক্রাইম ইন্টেলিজেন্স ইউনিট। পুলিশের নির্দেশ মেনে আজ ক্রাইম ব্রাঞ্চের অফিসে পৌঁছেছিলেন হৃত্বিক রোশন।২০১৬ সালে হৃতিক রোশন অভিযোগ করেন, তাঁর নামে ভুয়ো আইডি খুলে কেউ না কেউ কঙ্গনাকে ইমেল করেন। যদিও কঙ্গনার পালটা দাবি, যে অ্যাকাউন্ট থেকে তাঁকে মেল করা হয়, সেটি হৃতিকেরই।