রিয়ালের ত্রাতা কাসেমিরো

0
1

Last Updated on by

ম্যাচ জুড়ে শুধু চেষ্টাই করে গিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ, কিন্তু পারে নি খেলায় গতি আনতে। তবে প্রত্যাশিত জয় ঠিকই তুলে নিয়েছে ,এস্পানিওলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নশিপ লড়াইয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে ২ পয়েন্টে পেছনে ফেলেছে জিনেদিন জিদানের দল।

এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফিরেই জয়ের নায়ক হয়ে গিয়েছেন কাসেমিরো। প্রতিপক্ষের মাঠে লা লিগার ম্যাচে ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্সিভ-মিডফিল্ডারের একমাত্র গোলে জিতেছে রিয়াল।লিগে এই নিয়ে পাঁচ ম্যাচ খেলে সবকটিতে জিতল রিয়াল। শুরুতে নিজেদের গুছিয়ে নিতে একটু সময় নেওয়া রিয়াল ম্যাচের দশম মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগটি পায়। খুব কাছ থেকে হেডে ক্রসবারের ওপর দিয়ে বল পাঠান সের্হিও রামোস। ২০ মিনিটে ডান দিক থেকে মার্ক রোকার বাঁকানো ফ্রি-কিক পাঞ্চ করে ফেরান রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া।বিরতির আগে দু-তৃতীয়াংশের বেশি সময় বল দখলে রেখে রিয়াল আক্রমণে ওঠার চেষ্টা করে গেলেও তাদের খেলায় ছিল না চেনা ধার। বরং পাল্টা আক্রমণে স্বাগতিকরা দুবার ভীতি ছড়ায় রিয়াল শিবিরে, যদিও লক্ষ্যভ্রষ্ট শটে কোর্তোয়াকে পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি তারা।৪৪ মিনিটে ১৫ সেকেন্ডের ব্যবধানে তাদের দুটি চেষ্টা রুখে দেন স্বাগতিক গোলকিপার দিয়েগো লোপেস। এর মধ্যে সবচেয়ে সহজ সুযোগটি নষ্ট করেন আজার,ফাঁকায় বল পেয়ে তার নেওয়া শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান লোপেস।পরের মিনিটেই এগিয়ে যায় রিয়াল। মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের বাড়ানো ক্রস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে ব্যাকহিলে পেছনে বল বাড়ান করিম বেনজেমা। আর ছোট ডি-বক্সের মুখ থেকে অনায়াসে ঠিকানা খুঁজে নেন কাসেমিরো।দ্বিতীয়ার্ধেও সেই একই চিত্র; অধিকাংশ সময় বল দখলে নিয়ে প্রতিপক্ষের ওপর চাপ ধরে রাখে, কিন্তু জমাট রক্ষণ ভাঙতে পারছিল না তারা। উল্টো ৬৫ মিনিটে জোরালো নিচু ফ্রি-কিকে গোল পেতে পারতো এস্পানিওল, ঝাঁপিয়ে ঠেকান কোর্তোয়া।শেষ ১০ মিনিটে কেউই তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। তবে শেষে জয় হাতছাড়া হতে বসেছিল সফরকারীদের; আক্রমণ ঠেকাতে গিয়ে হেড করেছিলেন মার্সেলো। বল পোস্টের বাইরে দিয়ে গেলে হাঁফ ছেড়ে বাঁচে রিয়াল মাদ্রিদ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here