আমপান ধাক্কায় আরও সঙ্কটে কুমোরটুলি, পাশে মন্ত্রী শশী

0
2

Last Updated on by

লকডাউনে এমনিতেই সঙ্কটজনক অবস্থা হয়েছিল, তার ওপর আমপানের কবলে পড়ে প্রায় কোমায় চলে যাওয়া কুমোরটুলির পাশে দাঁড়ালেন মন্ত্রী শশী পাঁজা। সোমবার সকালে ক্ষতিগ্রস্ত কুমোরটুলির বাসিন্দাদের হাতে খাবার, ত্রিপল তুলে দিয়েছেন তিনি।

ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে শিল্পীদের কারও ঘরের চাল উড়ে গিয়েছে। কারও আবার প্রায় তৈরি হওয়া প্রতিমা গলে গিয়েছে। সেইসব ক্ষতি কাটিয়ে কিভাবে স্বাভাবিক হবে কুমোরটুলি তা জানা নেই শিল্পীদের। করোনা আবহে প্রত্যেক শিল্পীর ঘরেই পড়ে রয়েছে অবিক্রিত বাসন্তী, অন্নপূর্ণা, শীতলা। আর এবার প্রশ্ন উঠে গিয়েছে এবছরের দুর্গাপুজো নিয়ে কারণ পুজোর কয়েক মাস বাকি থাকলেও এখনও বায়না হয়নি দুর্গাপুজোর। অন্যান্য বছরে এসময় কুমোরটুলি থেকে বিদেশে অনেক প্রতিমাই পাড়ি দিয়ে দেয়। একটানা চলতে থাকা লকডাউনের বিধি ছেদ টেনেছে পুজো-পার্বণেও। আর তাই বড় বড় পুজো উদ্যোক্তারা তাদের পুজোর বায়না করতে আসবে কিনা সেদিকেই তাকিয়ে কুমোরটুলির প্রায় সাতশো শিল্পী।