মায়ানমারে টানা ১৮ দিনের প্রতিবাদ, বিক্ষোভ তুঙ্গে

0
2

মায়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে ডাকা টানা ১৮ দিনের মতো প্রতিবাদ চলছে। বন্ধ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, জান্তা সরকারের হুমকি উপেক্ষা করে রাজপথে নেমে এসেছেন হাজার হাজার বিক্ষোভকারী।

সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখলের পর সোমবারই মায়ানমারে সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে।বাইরের দুনিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে বিভিন্ন দেশের দূতাবাসের সামনে সমবেত হন বিক্ষোভকারীরা।মঙ্গলবার সকাল থেকে লেডান জেলায় জড়ো হতে থাকে বিক্ষোভকারীরা। সু চির মুক্তির দাবিতে তারা স্লোগান দিতে থাকে।এহেন পরিস্থিতিতে মায়ানমারের সেনাশাসকদের উপর আরও চাপ বাড়িয়েছেন রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতেরেস।বার্মিজ সেনা, টাটমাদাওকে কড়া ভাষায় বার্তা দিয়েছেন গুতেরেস। প্রশাসক তথা সে দেশে গণতন্ত্রের মুখ আং সান সু কি-সহ সকল রাজনৈতিক বন্দিদের দ্রুত মুক্তি দেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন তিনি। রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব বলেছেন, মায়ানমারের সেনাকে বলছেন, অবিলম্বে তারা যেন দেশের নেতা-নাগরিকদের উপর দমনমূলক নীতি প্রত্যাহার করে নেয়। বার্মিজ সেনার উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, বন্দিদের মুক্তি দিন। হিংসা বন্ধ করুন,মানবাধিকারকে সম্মান করুন এবং নির্বাচনে জনমতের সম্মান করুন। আধুনিক পৃথিবীতে সেনা অভ্যুত্থানের কোনও স্থান নেই। গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচিত সরকারকে মর্যাদা দিতেই হবে।উল্লেখ্য, ফেব্রুয়ারির ১ তারিখ দেশের দখল নেয় মায়ানমারের সেনাবাহিনী। ভোটে কারচুপির অভিযোগে বন্দি করা হয় প্রশাসক আং সান সু কি-সহ গণতান্ত্রিক সরকারের প্রতিনিধিদের।