মানসিক অবসাদে ভুলবশত খুন, দাবি দুর্গাপুরের ব্যাঙ্ক কর্মীর

0
18

অত্যাধিক চাপ এবং নিত্য নতুন বায়নার জন্যই মানসিক অবসাদ থেকে স্ত্রীকে খুন করেছেন বলে দাবি করেছেন দুর্গাপুরের বিপ্লব পারিয়াদ। তাঁর আরও দাবি ভুলবশতই স্ত্রীকে খুন করে ফেলেছে। যদিও বিপ্লবের এই যুক্তি মানতে নারাজ তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

তাঁদের পাল্টা দাবি বড়সড় ফ্ল্যাট কেনার টাকা চেয়ে তা না পাওয়ার আক্রোশে স্ত্রীকে খুন করেছেন বিপ্লব। দাবি-পাল্টা দাবির মধ্যে কোনটি খুনের প্রকৃত কারণ তা খোঁজার চেষ্টা করছে কাঁকসা থানার পুলিশ। সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার দুর্গাপুর শাখার সহকারী ম্যানেজার বিল্পবকে ৫ দিনের পুলিশ হেফাজতের নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। জেরায় বিপ্লব দাবি করেছেন তাঁর সঙ্গে অন্য মহিলার সম্পর্ক ছিল না। স্ত্রী ইপ্সা প্রিয়দর্শিনীরও বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল না। স্ত্রীর একাধিক চাহিদা এবং কাজের চাপে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন তিনি। তাই ভুলবশত স্ত্রীর গলায় কুকুরের বকলেস পেঁচিয়ে খুন করেছেন। এদিকে দুর্গাপুরের বিপ্লবের ঘটনা মনে করিয়ে দিয়েছে ২০১৫-য় প্রেমিক সুচেতা চক্রবর্তী এবং তাঁর শিশুকন্যা দীপাঞ্জনকে খুন করে বাস্কবন্দি অবস্থায় গঙ্গায় ফেলতে গিয়ে ধরা পড়া ব্যাঙ্ক কর্মী সমরেশ সরকারের কথা। বিপ্লবের মত সমরেশও ছিলেন মামরাবাজারের ব্যাঙ্কের সহকারী ম্যানেজার।