অস্ট্রিলিয়ায় ফের বাতিল জকোভিচের ভিসা

0
20

নোভাক জকোভিচের ভিসা ফের বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকার অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন মন্ত্রী অ্যালেক্স হক বিশেষ ক্ষমতা প্রয়োগ করে জোকোভিচের ভিসা বাতিল করে দিয়েছেন।

এর আগে আদালত টেনিস তারকার ভিসা বাতিলের সিদ্ধান্ত খারিজ করে দিয়েছিল।এর ফলে জোকোভিচের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলার সম্ভাবনা কার্যত নেই। কারণ, এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আবেদন করার জন্য তাঁকে ফের আদালতে যেতে হবে। সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন, তার আগে বিষয়টির নিষ্পত্তি হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই। অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন মন্ত্রী অ্যালেক্স হক এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, জনস্বার্থেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার সকলকে স্বাস্থ্যের কথা ভেবে নোভাক জোকোভিচের ভিসা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।হকের নেতৃত্বে যে তদন্ত হয়েছে তাতে দেখা গিয়েছে, গত সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের সময় জোকোভিচ ভুয়ো তথ্য দিয়েছিলেন। সেখানে উল্লেখ ছিল না যে, অস্ট্রেলিয়ায় আসার ১৪ দিন আগে তিনি সার্বিয়া এবং স্পেনে গিয়েছিলেন।মূল সমস্যা টেনিস তারকার কোভিডের টিকা না নেওয়ায়। অস্ট্রেলিয়ার নিয়ম অনুযায়ী টিকা ছাড়া দেশে ঢোকা সম্ভব নয়। কিন্তু ১৬ ডিসেম্বর তাঁর কোভিড পরীক্ষার ফল পজিটিভ এসেছিল, এই যুক্তি দেখিয়ে তিনি টিকা নেওয়া থেকে ছাড় চেয়েছিলেন। সোমবার অস্ট্রেলিয়ার আদালত রায় দিয়েছিল, জোকোভিচের টিকা নেওয়ার প্রয়োজন নেই। টিকা ছাড়াই তিনি দেশে ঢুকতে পারবেন। শুধু তাই নয় আদালত জানিয়েছিল, মেলবোর্ন বিমানবন্দরে পৌঁছনোর পর থেকে জোকোভিচের সঙ্গে সঠিক ব্যবহার করা হয়নি। তাঁর আইনজীবীর সঙ্গেও শুরুতে দেখা করতে দেওয়া হয়নি। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন দপ্তরের তদন্তে অন্য তথ্য উঠে এসেছে। সেখানে বলা হয়েছে, কোভিড পরীক্ষার ফল পজিটিভ হওয়া সত্ত্বেও জোকোভিচ ১৭ ডিসেম্বর বেলগ্রেডে একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। জোকোভিচ এর জবাবে বলেছেন, তিনি তখনও জানতেন না, তাঁর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। কিন্তু তদন্তে দেখা যায়, ১৬ ডিসেম্বর দুপুরে তিনি পরীক্ষা করিয়েছিলেন। তার সাত ঘণ্টা পরেই তাঁর কাছে পজিটিভ রিপোর্ট চলে আসে।