এনআরসির দাবি জানালেন মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী

0
35
Mizoram CM

Last Updated on by

মিজোরামে বসবাসকারী চাকমা জাতিগোষ্ঠীর লোকজন, বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী বলে, অভিযোগ তুলেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গা। মিজোরাম সরকার এসব অনুপ্রবেশকারীকে শনাক্ত করতে আসামের মতো এনআরসি বা জাতীয় নাগরিকপঞ্জি কার্যকর করতে চাইছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

জোরামথাঙ্গার এই ঘোষণায় ক্ষুব্ধ হয়ে চাকমারা বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রী চাকমাদের প্রতি ব্যক্তিগত বিদ্বেষ থেকে এ ধরনের সাম্প্রদায়িক ও উসকানিমূলক মন্তব্য করেছেন। চাকমারা মিজোরামের ভূমিপুত্র। তাঁরা বলেছেন,মুখ্যমন্ত্রীর পদে থেকে এ ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য তাঁরা মেনে নেবেন না। এটা চাকমাদের কাছে ভিত্তিহীন ও দুর্ভাগ্যজনক অভিযোগ। উত্তর-পূর্বের পাহাড়বেষ্টিত রাজ্য মিজোরামের বেশির ভাগ নাগরিক মিজো সম্প্রদায়ের। পাশাপাশি রয়েছেন চাকমারাও, মিজোরামের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গার অভিযোগ, এই রাজ্যের চাকমারা বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে  মিজোরামে এসেছে।জোরামথাঙ্গা গত নভেম্বর মাসে মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী হন। চাকমা মানবাধিকার সংগঠনের নেতা সুহাস চাকমা অভিযোগ করেছেন, ১৯৮৯ সাল থেকে মিয়ানমার থেকে আসা লক্ষাধিক শরণার্থীকে মিজোরামের চাম্পাইয়ে শিবির গড়ে আশ্রয় দেওয়া হয়েছিল। ১৯৯৫ সালে ওই শিবির ভেঙে দেওয়ার পরও মিয়ানমারের কোনো শরণার্থীকে মিজোরাম থেকে তাড়ানো হয়নি। কিন্তু এ ব্যাপারে কোনো কথা বলেননি মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গা। অথচ এ বছরের জুলাই মাসে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশ থেকে আসা ১১০ জন শরণার্থীকে ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছিল মিজোরাম সরকার।