রিয়া : অভিনেত্রী কেমন নিয়েও প্রশ্ন

0
33

রিয়া চক্রবর্তীর আট বছরের অভিনেত্রী কেরিয়ারে এটাই ছিল ড্রিম প্রজেক্ট, শুটিংও সম্পূর্ণ। কিন্তু স্বপ্নের সেই কাজ থেকেই কি বাদ পড়তে চেলেছেন রিয়া, সুশান্তকাণ্ডের পরবর্তী সময়ে সে রকমই দাবি উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।সম্প্রতি রিয়া কাজ করেছেন রুমি জাফরির পরিচালনায় চেহরে ছবিতে।

তাঁর বিপরীতে এ ছবিতে আছেন অমিতাভ বচ্চন, ইমরান হশমী এবং ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবি উঠেছে, এই ছবি থেকে বাদ দেওয়া হোক অভিনেত্রীকে।অনেকে তো এও পোস্ট করেছেন যে চেহরে থেকে রিয়াকে বাদ না দিলে তাঁরা এই ছবি বয়কট করবেন। তবে ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, রিয়াকে বাদ দেওয়ার কথা ভাবছেন না পরিচালক জাফরি।রুমির বক্তব্য, ছবিতে রিয়ার ভূমিকা খুবই ছোট।তিনি বিতর্কের অংশ হওয়ার আগেই এই ছবিতে অভিনয় শেষ করেছিলেন। ফলে রিয়ার পরিবর্তে অন্য অভিনেত্রীকে দিয়ে নতুন করে শুটিং করানো বা রিয়ার চরিত্রটি বাদ দেওয়া, কোনও কিছুই করা হবে না।সুশান্তকাণ্ডে রিয়ার পাশে দাঁড়িয়েছেন রুমি। বলেছেন,তিনি এমন কিছু করবেন না, যাতে ইন্ডাস্ট্রির কাছে রিয়াকে খারিজ করে দেওয়ার সঙ্কেত পৌঁছয়। রুমি মনে করেন, লড়াকু রিয়া সহজে হার মানবেন না। যত ক্ষণ না ন্যায়বিচার পাওয়া যায়, তত ক্ষণ তিনি লড়বেন।রুমি জাফরি ছিলেন সুশান্তের বন্ধু। নিজের ছবিতে সুশান্তের কথাতেই রিয়াকে সুযোগ দিয়েছিলেন তিনি।ছোট ভূমিকায় অভিনয় হলেও এই ছবিটি ঘিরে অনেক প্রত্যাশা ছিল রিয়ার। কারণ এই প্রথম তিনি অমিতাভ বচ্চনের মতো তারকার সঙ্গে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছিলেন। এর আগে তাঁর কেরিয়ারে সে ভাবে কোনও ছবি সুপারহিট হয়নি।২০১২ সালে অভিনয় জীবন শুরু রিয়া চক্রবর্তীর। তেলুগু ছবি ,তুনেগা তুনেগা-য় তাঁকে দেখা গিয়েছিল নিধির চরিত্রে।পরের বছর রিয়ার আত্মপ্রকাশ বলিউডে।মেরে ড্যাড কি মারুতি ছবিতে অভিনয় করেন তিনি।রিয়ার পরের ছবি সোনালি কেবল মুক্তি পেয়েছিল ২০১৪-এ। এই ছবিতে মূল ভূমিকায় ছিলেন তিনি। অনুপম খের, সানন্দ কিরকিরের মতো অভিনেতার সঙ্গে এ ছবিতে তিনি স্ক্রিন শেয়ার করেন।তার পরের দু’বছর কোনও ছবিতে সুযোগ পাননি রিয়া।অভিনয় করেছিলেন টেলিভিশন সিরিজে। ২০১৭-এ ,হাফ গার্লফ্রেন্ড ছবিতে তাঁকে দেখা যায় অংশিকা চরিত্রে।এর পর ,ব্যাঙ্ক চোর, জলেবি, দোবারা: সি ইউ ইভিল-এর মতো কিছু ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। কিন্তু কোনওটাই রিয়া চক্রবর্তীকে অভিনেত্রী হিসেবে ইন্ডাস্ট্রিতে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেনি।