তরোয়ালের আঘাতে আঙুল খোয়ালেন শিক্ষিকা, ধৃত ১

0
5

কিশোরের তরোয়াল হামলার ঘটনায় উত্তর চব্বিশ পরগনার হাবড়ায় জোড়া আঙুল খুইয়েছেন শিক্ষিকা। তরোয়ালের আঘাতে শিক্ষিকার দুহাতের কবজিতে গভীর ক্ষত তৈরি হয়েছে। এমন ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বছর আঠেরোর কিশোরের খুরশিদ আলম মণ্ডলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

হাবড়ার বিশ্বাস পাড়া এলাকার বাসিন্দা বছর বিয়াল্লিশের নাজমুন নাহার রাউতারা হাইস্কুলের প্যারা টিচার হিসেবে কর্মরত। অভিযোগ, শনিবার রাত আনুমানিক সাড়ে দশটা নাগাদ কালো পোশাক, মুখে মুখোশের সঙ্গে হাতে তরোয়াল নিয়ে পাঁচিল টপকে শিক্ষিকা নাজমুনের বাড়িতে ঢুকে তার কাছ অবধি চলে আসে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তরোয়াল দিয়ে শিক্ষিকার কবজিতে এলোপাথাড়ি আঘাত করতে শুরু করে অভিযুক্ত। আর এর মধ্যেই ধারালো তরোয়ালের কোপ গিয়ে আঙুলে পড়ে। রক্তাক্ত অবস্থায় কোনওভাবে বাড়ির লোক শিক্ষিকাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু তার অবস্থার অবনতি শিক্ষিকা নাজমুনকে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এমন ঘটনায় আক্রান্ত শিক্ষিকার পরিবার পুলিশের দ্বারস্থ হন। নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ খুরশিদকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে। আক্রান্ত শিক্ষিকার পরিবারের দাবি, নাজমুনের সঙ্গে কারওর কোনও শত্রুতা ছিল না। সে নির্বিবাদী হিসেবেই পরিচিত। কী কারণে এমন হামলা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।