Warning: Constant WP_MEMORY_LIMIT already defined in /home/customer/www/snewz.in/public_html/wp-config.php on line 105
ইউটিউবার হওয়ার ঝোঁক বাড়ছে  - S Newz
Friday, December 9, 2022
লাইফস্টাইলইউটিউবার হওয়ার ঝোঁক বাড়ছে 

ইউটিউবার হওয়ার ঝোঁক বাড়ছে 

ইন্টারনেট ও মোবাইল,নতুন প্রজন্মের এই দুই জিনিসকে হাতিয়ার করে বিশ্ব জুড়ে বিনোদনের সংজ্ঞাই বদলে দিয়েছে ইউটিউব।ক্রমশ লাফিয়ে বাড়ছে ইউটিউবের দর্শক সংখ্যা।

শুধু দর্শক হিসাবেই নয়, নতুন প্রজন্ম ইউটিউবকে উপার্জনের মাধ্যম হিসাবেও ব্যবহার করছে।এখন অনেকেই অন্য পেশা ছেড়ে ইউটিউবার হতে চান। নিজস্ব একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করেন।সেখানেই বিভিন্ন ধরনের বিনোদনমূলক কাজকর্ম করে থাকেন।যাঁরা ইউটিউবের নিয়মিত দর্শক, এই ধরনের বিনোদন পেতে নিজেদের সেই চ্যানেলের সদস্য করে নেন।চ্যানেলের সদস্য সংখ্যা অনুযায়ী প্রতি মাসে আয়ের পরিমাণ নির্ভর করে। অর্থাৎ ,সাবস্ক্রাইবার বেশি হলে ইউটিউব সংস্থাও সংশ্লিষ্ট চ্যানেলটিকে বেশি টাকা দেয়।টেলিভিশনের জনপ্রিয়তাকে প্রায় ছুঁয়ে ফেলেছে ইউটিউব।কোনও কোনও ক্ষেত্রে টেলিভিশনকেও ছাপিয়ে গিয়েছে। এমনকি, প্রতিদিন টেলিভিশনের পর্দায় যাঁরা ফুটে ওঠেন,তাঁদের অনেকেই এক-একটি করে ইউটিউব চ্যানেল চালান।নিজেদের জীবনের রোজনামচা ইউটিউব চ্যানেলের দর্শকদের সামনে তুলে ধরেন।দ্রুত জনপ্রিয়তা পেতে এবং আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল হতে এই প্রজন্মের অনেকেই তাই পেশা হিসাবে বেছে নিচ্ছেন ইউটিউব।ঝাঁপ দিচ্ছেন অনিশ্চিতের দিকে। বিশেষজ্ঞদের মতে,সব জিনিসেরই ভাল এবং খারাপ, দু’টি দিক আছে।ইউটিউবার হতে চাওয়ার ইচ্ছা খারাপ নয়,কিন্তু তার উপরেই যেন জীবন নির্ভরশীল না হয়ে পড়ে।বিকল্প কোনও ভাবনা ভেবে রাখা জরুরি।কিংবা অন্য কোনও কাজ করার পাশাপাশি,এটি করা যেতে পারে।তাতে মানসিক চাপ কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে থাকে।আসলে,নেটমাধ্যমে প্রভাবী বা,ইনফ্লুয়েন্সার হওয়ার স্বপ্ন দেখেন তরুণ প্রজন্মের অনেকেই। এর জন্যে প্রচুর পরিশ্রমও দরকার হয়।দশর্কের পছন্দ বুঝে সেই মতো অনুষ্ঠান তাঁদের সামনে নিয়ে আসে একেবারেই সহজসাধ্য নয়।সেই সঙ্গে তো রয়েছে পারস্পরিক প্রতিযোগিতা।এর ফলে মাঝেমাঝেই শিল্পের মান কিছুটা হলেও কমে যায়।তা ছাড়া সাফল্য-ব্যর্থতা তো আছে।সমীক্ষা বলছে,১৮ থেকে ২৬ বছর বয়সিদের মধ্যে ইউটিউবকে পেশা হিসাবে বেছে নেওয়ার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি।সোশ্যাল মিডিয়ার অর্থনীতি বিশেষজ্ঞরা বলছেন,কম সময়ে বিপুল জনপ্রিয়তা এবং অর্থ,এই দুইয়ের কারণেই মূলত এই পেশার প্রতি ঝোঁক বাড়ছে।সেই সঙ্গে বাড়ছে প্রতিযোগিতা ও মানসিক চাপ।এর প্রভাব পড়ছে ব্যক্তিগত জীবনেও। তাঁদের মতে, ইউটিউবকে আয়ের একমাত্র উৎস হিসাবে না দেখে নিজেদের শিল্পী সত্ত্বা প্রকাশের মাধ্যম হিসাবে দেখাই শ্রেয়।

More News

প্রায়ত টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেতা

0
প্রায়ত টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেতা সিদ্ধান্ত বীর সূর্যবংশী। শুক্রবার জিমে ওয়ার্ক আউট করার সময় আচমকা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে...

ইউটিউবে থেকে ৪৫টি ভিডিও ব্লক কেন্দ্রের 

0
ইউটিউবের ১০টি চ্যানেলের ৪৫টি ভিডিওকে নিষিদ্ধ করেছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর জানিয়েছেন, ভুল...

বেড নেই, মেঝেতে ঠাঁই রোগীর, বিতর্ক   

0
হাসপাতালে বেড খালি নেই, তাই মেঝেতে বসেই রক্ত দেওয়া হল রোগীকে। মেয়ের রক্তের ব্যাগ ধরে...