ত্রিপুরায় লকআপে মৃত্যু, চিঠি তৃণমূলের

0
4

সিপাহীজলার সোনামুড়া মহকুমা থানার লকআপে অভিযুক্ত জামাল হুসনের মৃত্যুর ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানিয়ে ত্রিপুরার মুখ্যসচিবকে চিঠি দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস।

তাদের দাবি, হাইকোর্টে কর্মরত বিচারপতিকে ওই তদন্তের দায়িত্ব দিতে হবে। তবে ত্রিপুরার সরকার জামাল হুসেনের মৃত্যুর বিষয়ে ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।সিপাহীজলার অতিরিক্ত জেলাশাসক শুভাশিস বন্দ্যোপাধ্যায় ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্ত করছেন।তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন বলেছেন, পুলিশ সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে জামাল হুসেনকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে এসেছিল। ২০১৬ সালের একটি মামলায় জামালকে তুলে আনা হয়েছিল।কিন্তু ২০১৭ সালে তাঁকে পাসপোর্ট দেওয়া হয়েছে।তাঁর বিরুদ্ধে মামলা থাকলে, পাসপোর্ট কিভাবে দেওয়া হয়েছে বলে প্রশ্ন করেছেন তৃণমূল সাংসদ।তাঁর দাবি, জামালকে নিয়ে যাওয়া সময় পুলিশ বলেছিল পরের দিন তাঁর মৃতদেহ পাওয়া যাবে।এদিকে বিজেপির মুখপাত্র নবেন্দু ভট্টাচার্য বলেছেন, কোনও রাজনৈতিক দল দাবি জানাতেই পারে। তবে সরকার ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।পরিস্থিতি অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।পুলিশের দাবি, জামাল হুসেন ডাকাতি ও এনডিপিএস মামলায় অভিযুক্ত ছিল। তাঁকে গ্রেফতারের পরে শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছিল।এরপরে তাঁকে লকআপে রাখা হয়।শারীরিক কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।