কোথায় যাচ্ছেন মেসি?

0
18

বার্সেলোনা ছাড়ছেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসি।এই সপ্তাহান্তে মেসি আর টেস্ট বা ট্রেনিংয়ে অংশ নেবেন না, সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত।

দ্রুত চুক্তি বাতিল করে নতুন ঠিকানা খুঁজতে চান আর্জেন্টাইন জাদুকর।বার্সার সঙ্গে মেসির বর্তমান চুক্তি আছে ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত। ওই চুক্তি রিনিউ তো পরের কথা, শেষ করেও যেতে রাজি নন মেসি। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, মেসি যাবেন কোথায়?

আর্জেন্টিনার এই মহাতারকাকে দলে নিতে বিশ্বের যেকোনো ক্লাব আগ্রহী থাকবে। কিন্তু এবারে বিষয়টা জটিল, ক্লাবের আনুষ্ঠানিক প্যাডে মেসির সই নিতে আসলে খুব অল্প ক্লাবই তৈরি।তাদের মধ্যে একটা ম্যানচেস্টার সিটি।বলার অপেক্ষা রাখে না মেসি তার ক্লাব ক্যারিয়ারের সেরা সময়টা কাটিয়েছেন পেপ গার্দিওলার অধীনেই।মেসির দুই প্রিয় বন্ধুর একজন সার্জিও অ্যাগুয়েরো বহু বছর ধরে খেলছেন ম্যানচেস্টার সিটিতে, ক্লাবটির ইতিহাসের সফলতম ফুটবলার তিনি।আরেক প্রিয় বন্ধু সেস ফ্যাব্রেগাস ইংলিশ ফুটবলে খেলেছেন বহুদিন। তাই প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে মেসির উচ্চ ধারণা আছে। এবং যেসব ক্লাব মেসির আকাশচুম্বী বেতন দিতে সক্ষম তার একটি ম্যানচেস্টার সিটি।ওদিকে, খবর ইংলিশ ফুটবলের সফলতম ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডও মেসির দিকে হাত বাড়াবে। সম্প্রতি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ট্রান্সফার মার্কেটে ভুল করছে একের পর এক। ফ্যানরা এখন ইউনাইটেডের বর্তমান মালিক গ্ল্যাজার পরিবারের ওপর ক্ষুব্ধ। এটা এমনই এক পরিস্থিতি নিজের ভাবমূর্তি রক্ষা করতে মেসির শরণাপন্ন হতেই পারে এই বিপুল অর্থের মালিক পরিবার।

তবে আরো একটা বিষয় এখানে বিবেচনায় আসবে সেটা জীবনযাপন নিয়ে, মেসির পরিবার ইংল্যান্ডে মানিয়ে নিতে কতটা পারবেন আর মেসির বাচ্চারা? তবে মেসির বাচ্চারা এখনই বার্সেলোনায় একটি ব্রিটিশ স্কুলে লেখা পড়া করছে। ইংল্যান্ডের বাইরে সবচেয়ে বেশি শোনা যাচ্ছে প্যারিসের নাম।এবার ইউরোপীয়ান ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতায় রানার আপ হয়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই। তাদের আছে অর্থ, জৌলুস এবং মেসিকে দলে নিলে আবারো মেসি ও নেইমারের জুগলবন্দী দেখতে পারে ফুটবল বিশ্ব।

এর আগে সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বার্সেলোনা ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন ক্লাব-র সেরা তারকা ও অধিনায়ক লিওনেল মেসি। আর তিনি এই ক্লাবে থাকবেন না বলে বার্সা কর্তৃপক্ষকে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন। মেসির বার্সা ছেড়ে দেওয়ার গুঞ্জন অনেক আগে থেকেই বাতাসে ভাসছিল। তবে এবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা জানালেন তিনি। বার্সেলোনার এমন দুঃসময়ে কেন হাল না ধরে ছেড়ে দিচ্ছেন,সে প্রশ্ন জেগেছে বহু ফুটবলপ্রেমীর মনে।ইতিমধ্যে বিষয়টি নিয়ে মেসির সমর্থকরা বার্সেলোনা ক্লাবটির সামনে বিক্ষোভও করেছেন।

ঠিক কী কারণে বার্সা ছাড়তে চাইচ্ছেন মেসি? এক পক্ষ বলছে,করোনার কারণে ক্লাব যে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে,তা থেকে কাটিয়ে উঠতে মেসিকে বিক্রি করতে চায় বার্সা। তাছাড়া বার্সার নতুন কোচ কোম্যানের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা মেসির মনে ধরেনি।বর্তমান দল নিয়েও তিনি অসন্তুষ্ট ছিলেন। তাছাড়া জার্মানির শক্তিশালী ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে নাস্তানাবুদ হয়ে ক্লাব-র ইমেজ আরও ক্ষুণ্ণ হয়েছে। আর এসব ক্ষতি থেকে কাটিয়ে উঠতে মেসিকে বিক্রি করতে চায় বার্সেলোনা।এ ছাড়া আরও একটি বড় কারণ রয়েছে, বার্সা বোর্ডের সঙ্গে মেসির বনিবনা হচ্ছিল না। এর আগে মেসির কয়েকটি সাক্ষাৎকারেও বিষয়টি উঠে আসে। ক্লাবটির প্রেসিডেন্ট মারিয়া বার্তোমেউ চাইচ্ছেন, বুড়োদের ছেঁটে ফেলে নতুন দল তৈরি করতে, যেখানে মেসিকেও রাখছেন তিনি।

তবে লিওনেল মেসির জন্য সবচেয়ে রোমান্টিক হবে যদি সে তার ছোটবেলার ক্লাব নিউয়েল ওল্ড বয়েজে যান। আর্জেন্টিনার রোজারিওর এই ক্লাবেই মেসি শৈশবে বলের সাথে বন্ধুত্ব করেন। শেষ অপশন হবে পারে মেসি আসবেন এশিয়াতে, মেসির প্রাক্তন দুই সতীর্থ জাভি ও ইনিয়েস্তা এখন এশিয়াতেই ফুটবল নিয়ে সময় কাটাচ্ছেন। জাভি কাতারে কোচের দায়িত্বে আছেন, ইনিয়েস্তা জাপানে।তবে এসব ভাবনা ছেড়ে দেওয়াই ভালো। লিওনেল মেসি এখনো সর্বোচ্চ পর্যায়ে খেলার মতো অবস্থায় আছেন, আরো একটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার চেষ্টা তিনি করতেই পারেন।