বিক্ষিপ্ত অশান্তির মধ্যে শেষ ভোট, দিনভর তপ্ত খড়দহ

0
16

বিক্ষিপ্ত অশান্তির মধ্যেই শেষ হয়েছে রাজ্যের ৪ কেন্দ্রের উপনির্বাচন। আর ভোট অশান্তিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর অতিসক্রিয়তার অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। যার সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে খড়দহে।

সকালে সিপিএম নেতা তন্ময় ভট্টাচার্য-র মাথা ফাটা থেকে ভোট শেষে প্রয়াত বিধায়ক কাজল সিনহার ছেলেকে মারধরের অভিযোগ। দিনভর উত্তপ্তই ছিল কলকাতা লাগোয়া খড়দহ। এরই মধ্যে দিনহাটায় ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে নিয়ে ভোট দিতে ঢুকে বিতর্কে জড়িয়েছেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিকও। তবে ভোটদানের হারে অন্য সব কেন্দ্রের থেকে পিছিয়ে থেকেও অশান্তিতে এগিয়ে ছিল খড়দহ। সকালে তেঘরিয়ায় ভুয়ো ভোটার ধরার দাবি করেন বিজেপি প্রার্থী জয় সাহা। এই নিয়ে তৃণমূল-বিজেপি ধস্তাধস্তি বেধে যায়। ফের বিকেলের দিকে খড়দহের বন্দিপুর অ্যাকাডেমির বুথে গিয়ে আরও একবার হাতেনাতে ভুয়ো ভোটার ধরার দাবি করেছেন তিনি। এরপরেই তৃণমূল কর্মীরা বিজেপি প্রার্থী জয় সাহাকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। তখনই কেন্দ্রীয় বাহিনীর লাঠিচার্জে বেশকয়েকজন তৃণমূল কর্মী আহত হয়েছেন বলে খবর। এদিকে সকালের দিকে তৃণমূল প্রার্থী শোভনদেবকে কেন্দ্রীয় বাহিনী বুথে ঢুকতে বাধা দিলে বচসা বেধে যায়। এরপরে বিকেলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। খড়দহের প্রয়াত বিধায়ক কাজল সিনহার ছেলে আর‌্যদীপ সিনহাকে মারধরের অভিযোগ ওঠে বিজেপি প্রার্থী জয় সাহার ব্যক্তিগত দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে। প্রতিবাদে বিটি রোড অবরোধ করেন তৃণমূল কর্মীরা। তবে বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা ছাড়া তুলনায় অনেকটাই শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে শান্তিপুর এবং গোসাবায়। সকালের দিকে দলীয় উত্তরীয় ঝুলিয়ে গোসাবায় বুথ পরিদর্শনের অভিযোগ ওঠে তৃণমূল প্রার্থী সুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে। এদিকে শান্তিপুরে তৃণমূলের ভয়ে বিজেপি এজেন্ট ছেলেকে তালাবন্দি করে রাখেন মা। তবে এতকিছুর পরেও চার কেন্দ্রে জয়ে ব্যাপারে আশাবাদী তৃণমূল। সাংবাদিক বৈঠকে করে সেকথা জানিয়েছেন মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।