ড্রাকুলা স্যার-এর ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার 

0
28

ড্রাকুলা স্যার-এর অমল আর মঞ্জরী সিনেমাপ্রেমীদের ঘরে পৌঁছে যেতে চলেছেন। সৌজন্যে ওয়েব প্ল্যাটফর্ম-এর ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার।

১১ ডিসেম্বর দেখা যাবে অনির্বাণ-মিমি অভিনীত ড্রাকুলা স্যার ছবিটি, একথা নিজেই জানিয়েছেন মঞ্জরী মানে মিমি চক্রবর্তী। মিমির মঞ্জরী হয়ে ওঠার একটি ভিডিয়ো পোস্ট করা হয়েছে। যেখানে সাংসদ-অভিনেত্রীকে বলতে শোনা গিয়েছে তিনি আবার মঞ্জরী লুকে ফিরে যাবেন।ভিডিয়োতে মিমিকে বলতে শোনা গিয়েছে অমল-মঞ্জরীর রসায়নের কথা। অমল-মঞ্জরীর ভালোবাসার কথা মনে করিয়ে দিয়ে মিমি বলেছেন, ভালোবাসে অনেকে, কিন্তু ভালোবাসার মাশুল গোনে কজন।ড্রাকুলা স্যার শুধুমাত্র অমল-মঞ্জরীর ভালোবাসার গল্প নয়,এই ছবির মাধ্যমে রূপক অর্থে অনেক কথাই তুলে ধরেছেন পরিচালক। দেবালয় ভট্টাচার্য  ছবিতে দেশীয় গন্ধের পাশাপাশি পাশ্চাত্যের সিনেমার ধরনও ক্যাপচার করেছেন। ইংরাজি ছবির দর্শক ড্রাকুলার সঙ্গে বেশ ভালোই পরিচিত। যদিও আবার ড্রাকুলা স্যার ছবিতে,ড্রাকুলার কথা উঠে এলেও তা রূপক অর্থে। ছবিতে বাঙালীয়ানা রয়েছে। ১৯৭১-এর সময়কাল এবং বর্তমান সময়, পশ্চিমবঙ্গের দুই সময়কাল সমান্তরালভাবে গল্পের প্রেক্ষাপটে তুলে ধরা হয়েছে।উঠে এসেছে শিক্ষকের ভূমিকায় অনির্বাণ,তাঁর ক্যানাইন দাঁতের বিড়ম্বনা কথা। ১৯৭১-এর নকশাল আন্দোলনের প্রসঙ্গও যেমন ড্রাকুলা স্যার ছবিতে রয়েছে, তেমন রয়েছে অমল সোমের ভালোবাসার কথাও।