ট্রেনে আত্মঘাতী লকডাউনে কাজ হারানো যুবকের

0
5

লকডাউনে কাজ হারানো যুবকের ট্রেনের মধ্যে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বারুইপুরে। জানা গিয়েছে বারুইপুরের বাসিন্দা চিরঞ্জিত তাঁতি ৭ মাস ধরে কোনও কাজ ছিল না।

জমানো টাকাও প্রায় শেষ হযে গিয়েছিল। পরিবারের খরচ টানতে কাজের সন্ধানও করছিলেন। কিন্তু কিছুতেই কোনও ব্যবস্থা করতে পারছিলেন না চিরঞ্জিত। অবশেষে শুক্রবার রাতে ট্রেনের কামরা থেকে তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছে। চিরঞ্জিত কলকাতার হোটেলে রাঁধুনির কাজ করতেন। পরিবারের দাবি লকডাউনে কাজ চলে যাওয়ার পর থেকেই কাজের খোঁজ করছিলেন। ভাড়াবাড়িতে স্ত্রী এবং দুই সন্তানকে নিয়ে আর্থিক সঙ্কটে পড়েছিলেন ধনঞ্জয়। বাজারে দেনা হয়ে যাওয়ায় দাদার বাড়িতে গিয়ে ওঠেন চিরঞ্জিত। দিন কয়েক আগে সন্তানদের নিয়ে বাপের বাড়িতে চলে যান স্ত্রী। এরপর শুক্রবার রাতে শ্বশুরবাড়িতে স্ত্রীর সঙ্গে বচসা হয় চিরঞ্জিতের। এরপর রাতে বারুইপুর লোকালে চিরঞ্জিতের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছে।